বাইরে বেরোনো,হার্টের অসুখ,ক্রনিক অসুখে ডাক্তারবাবু কি বলছেন ?

১) যাদের বাধ্য হয়ে ভিড়ে গণমাধ্যমে কাজে যেতে হচ্ছে তাদের কোনও ডায়েট ?

– আলাদা করে কোনও স্পেশাল ডায়েট নেই তবে একটা ব্যালান্স ডায়েটের প্রয়োজন আছে । কার্বোহাইড্রেট ,প্রোটিন ফ্যাট ,ফল, শাকসব্জি আছে এমন ডায়েটের প্রয়োজন। সকালে হেভি ব্রেকফাস্ট করা জরুরি যাতে যথেষ্ট নিউট্রিশন ও ক্যালোরি থাকে। প্রোটিন মানে মাছ,মাংস,ডিম,ডাল,দুধ ,ছানা। লাঞ্চে ফল,চিড়ে,মুড়ি,রুটি সবজি,সুজি । দু ঘন্টা ,তিনঘন্টা অন্তর ছোট মিল খাওয়া ভাল। বাইরে থেকে ফিরে স্নান করা খুব জরুরি আর ডিনার টা একটু আগে মানে এই ৮.৩০ /৯ টায় করে নিলে ভাল ।

২) এই সময়ের হার্টের চেক আপ,ডাক্তার চেম্বার যেখানে দুরূহ কি করলে হার্ট ভালো থাকবে?

– ,এই সময় যাদের হার্টের অসুখ আছে তাদের বেরিয়ে ডাক্তার দেখানো একটু সমস্যা। আমরা জানি হার্টের অসুখ,ডায়াবেটিস রুগীদের কো মরবিডির  কারণে করোনা রিস্ক অনেক বেশি সেই কারণে নিযমিত ওষুধপত্র খাওয়া ,ব্লাড প্রেশার চেক করা, glucometer সুগার টেস্ট করা আর নিয়মিত ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা,একটা রুটিন মাফিক পরামর্শ করা ,টেলিফোনে বা ভিডিও কলে এছাড়া এক্সেসিভ ফিজিক্যাল এক্সারসাইজ আর মেন্টাল স্ট্রেস থেকে দূরে থাকা আর এই সময়ে অনেকেই যেটা করছেন অর্থাৎ লাগাম ছাড়া খাওয়া দাওয়া করা বন্ধ করতে হবে ।

৩) ক্রনিক রুগীর আতঙ্ক হচ্ছে প্রয়োজন হলেও এখন হাসপাতাল যাব না ,করোনা আক্রান্ত হবার ভয়ে ?

– যাদের ক্রনিক অসুখ যেমন ব্রঙ্কাইটিস ,সি ও পি ডি ,কিডনির অসুখ আছে তাদের বাইরে বেরোলে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি সুতরাং তাদের খুব নিয়ন্ত্রিত জীবন যাপন করা জরুরি । সি ও পিডি রুগীদের নিয়মিত প্রয়োজন অনুযায়ী নেবুলাইজার নেওয়া ইত্যাদি লক্ষ্য রাখা উচিত ।

৪) এই সময়ে বাড়িতে অনেকে বেশি ভাজা ভুজি তেল মশলা দেওয়া খাবার খাচ্ছেন মন ভালো রাখার জন্য এটা মনের দিক আর শরীরের দিক দিয়ে কতটা ভাল মন্দ ?

– এই সময়ে বাড়িতে বোর হয়ে অনেকেই রোজ ভালোমন্দ সাঁটাচ্ছেন । হজম করতে পারলে ভাল আর বাড়িতে বেশি পরিমানে এক্সসারসাইজ করতে পারলে সেই খাবার হজম হলে সমস্যা নেই কিন্তু শুধু সেডেন্টারি লাইফস্টাইলে রেগুলার খেয়ে মোটা হয়ে গেলাম এটা কোনও কাজের কথা নয় ।

৫) হার্টে কম বেশি সমস্যা রোগীদের কেমন এক্সসারসাইজ করা উচিত?

– হার্টে সমস্যা থাকলে এক্সারসাইজ খুব বুঝে শুনেই করা উচিত ,এমন করোনারি আর্টারি অসুখে যেখানে হার্টের মেন্ ধমনীতে রক্ত চলাচল কমে যায় সেখানে কোনও স্ট্রেসফুল  এক্সারসাইজ না করাই উচিত কিন্তু নিয়মিত হাঁটলে বা কিছুটা ব্রিস্ক ওয়াকিং করলে সেটা হার্টের পক্ষে ভাল I এ ছাড়া যোগাসন,  ব্রিদিং ,ঘাড়ের, জয়েন্টের এক্সারসাইজ বেশ উপকারী হবে ।

ডক্টর শুভাশিস গাঙ্গুলী
MD কনসালটেন্ট ফিজিসিয়ান এন্ড কার্ডিওলজিস্ট

98310 81811

1 thought on “বাইরে বেরোনো,হার্টের অসুখ,ক্রনিক অসুখে ডাক্তারবাবু কি বলছেন ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *