খাজুরাহো

পাথরের মূর্তিতেও যে প্রাণ সঞ্চার করা যায় সেটা  খাজুরাহো এলে অনুভূত হয় ।তাই ১৯৮৬ সালে ইউনেস্কোর  বিশ্ব ঐতিহ্যের খেতাব পাওয়া খাজুরাহো ছাড়া মধ্যপ্রদেশ বেড়ানো অসম্পূর্ণ ।

জানেন কি প্রায় ১০০০ বছর বনজঙ্গলে ,মাটিচাপা পড়া সকলের চোখের আড়ালে লুকিয়ে ছিল এই খাজুরাহো মন্দির ? চান্দেলা সাম্রাজ্যের এই মন্দিরের কথা ১০২২ সালে আল -বেরুনীর আর ১৩৩৫ সালে ইবন বতুতার লেখায় উল্লেখ আছে ।১৯২৩ সালে ব্রিটিশ সার্ভেয়ার টি এস বার্ট জঙ্গলে শিকার করতে গিয়ে খাজুরাহো মন্দির আবিষ্কার করেন। উল্লেখযোগ্য ৮৫ টি মন্দিরের মধ্যে এখন ২২ টি মন্দির অন্যান্য নিদর্শনের সাক্ষ্য বহন করছে ।

মন্দিরগুলি ত্রিরথা, পাঁচরথা ও সাতরথা শৈলীতে গড়ে উঠেছে যার মূল উপকরণ ছিল উচ্চমানের বেলে ও গ্রানাইট পাথর যদিও শক্ত গ্রানাইটে গড়ে ওঠা মন্দিরের গায়ে অপেক্ষাকৃত নরম বেলেপাথর দিয়ে নির্মিত মূর্তির সৌন্দর্যই এখানকার প্রধান আকর্ষণ ।সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হল পশ্চিমাগোষ্ঠীর মন্দিরগুলি যার মধ্যে আছে ৬৪ যোগিনী মন্দির, লালগুয়ান মন্দির ,মাতঙ্গেশ্বর মন্দির,বরাহ মন্দির,লক্ষণ মন্দির, বিশ্বনাথ মন্দির,পার্বতী মন্দির,চিত্রগুপ্ত মন্দির প্রভৃতি/ এখানকার বরাহ মূর্তিটি দেখে স্তম্ভিত হতে হয়কি ভাবে পৌনে ন ফুট লম্বা আর পৌনে ছ ফুট উচ্চতার মূর্তিটি একটিমাত্র পাথর কেটে তৈরী করা হয়েছিল।

এই মন্দিরের ভেতরে ২২৬টা ও বাইরে ৬৪৬ মোট ৮৭২ টি মূর্তি আছে যা মন্ত্রমুগ্ধ করে শিল্পরসিক ও পর্যটকদের ।

সন্ধ্যেবেলায় লাইট এন্ড শো হয় যার ধারাভাষ্যে অমিতাভ বচ্চন  সে এক দারুন অনুভূতি ।

খাজুরাহোর কাছেই আছে :

পান্না ন্যাশনাল পার্ক : ৫৭ কিমি দূরে/বাঘ,লেপার্ড,আফ্রিকান ওয়াইল্ড ডগ,সম্বর,হায়না,শ্লথ বিয়ার ,নীলগাই আছে /বিশাল প্রকান্ড প্রাচীন সব গাছ আছে ,আর হীরক রাজার দেশের মত আছে হীরা  শিল্প

এছাড়াও ঘুরে দেখতে পারেন পান্ডব ফলস ,লেক ও মিউজিয়াম যা ১৫০ বছর আগে তৈরী করেছিলেন রাজা স্ত্রুজিৎ বুন্দেলা । 

কিভাবে যাবেন :22912  শিপ্রা এক্সপ্রেস সোম,বৃহস্পতি ও শনিবার ১৭.৪৫ এ হাওড়া ছেড়ে পরের দিন ১১.২৫ নাগাদ ৯৯১ কিমি দূরের সাতনা স্টেশনে পৌঁছয় ,সেখান থেকে খাজুরাহো ১১৫ কিলোমিটার। 

কোথায় থাকবেন : এমপিটিডিসির হোটেল ঝংকার  (০৭৬৮৬২৭৪০৬৩ /২৭৪১৯৪) পায়েল (০৭৬৮৬২৭৪০৬৪/২৭৪০৭৬)         

কোথায় খাবেন : 

রাজাস ক্যাফে তে পিৎজা,ফ্রেঞ্চ ফ্রাই,স্যান্ডউইচ 

লা বেলা ইটালিয়া তে (জৈন টেম্পল রোড)  পিৎজা,লাসাগনে,ক্যাপুচিনো  

লেকের ধারে বদ্রিশেঠ মারোয়াড়ি ভোজ এ ভেজে থালি,ডাল বাতি চূরমা           ,

বুকিং :এমপিটিডিসি ,চিত্রকূট বিল্ডিং ,রাম নম্বর -৭ ২৩০ এজেসি বোস রোড ,কলকাতা-৭০০০২০           ফোন : ০৩৩ -২২৮৩ ৩৫২৬

এই অস্থির বিপর্যয় কালে বেড়ানোর প্ল্যান করার আগে সব সুরক্ষা ,নিয়মাবলী ওখানকার বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে আর সবকিছু ঠিক থাকলে তবেই বেরনো ভাল ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *