দেবান্তরা আর্টস আর কাব্যকলা মনন

অন্তরা আর দেবাশিস চ্যাটার্জী । উত্তর কলকাতার অধুনা বিলুপ্ত পেশাদারি নাট্যমঞ্চের পীঠস্থান হাতিবাগানের কাছেই ওদের বাড়ি । অন্তরার প্রয়াত পিতা প্রখ্যাত তবলিয়া ও বাচিক শিল্পী শ্রী অমিয় মুখোপাধ্যায়ের সৃষ্ট ‘কাব্যকলা মনন’।এই দম্পতি সম্প্রতি গ্রূপ থিয়েটারি দুনিয়ায় তাদের প্রথম প্রযোজনা বিখ্যাত ঔপন্যাসিক খালিদ হোসেইনির সাড়াজাগানো উপন্যাস’দ্য কাইট রানার’এরই মধ্যে বিপুল দর্শকের প্রশংসা ও সমর্থন পেয়েছে।শুধু প্রযোজনাই নয়,কাইট রানারের চিত্রনাট্য লিখেছে অন্তরা।ওরা ওদের পাশে পেয়েছে এই সময়ের গ্রূপ থিয়েটারের দুই সাড়াজাগানো নির্দেশক ও অভিনেতা শ্রী প্রসেনজিৎ বর্ধন ও সুমিত কুমার রায় আর তাদের গোটা দলকে ।ছোট্ট দুটি চরিত্রে সাবলীল অভিনয় ও করেছেন  এই দম্পতি।

খালিদ হোসেইনির ‘কাইট রানার’ গল্পের পটভূমি  ১৯৭৫ সালের রাশিয়া অধিকৃত আফগানিস্তানে আমির আর হাসান দুই প্রাণের বন্ধুর মর্মস্পর্শী জীবনগাথা । শৈশবে প্রাণের বন্ধুর সঙ্গে ঘুড়ির লড়াই , বিশ্বাসঘাতকতা ,বিচ্ছেদ ,যন্ত্রণার এক আশ্চর্য উপাখ্যান।  

করোনা ক্রান্তিকালের আগেই গত ডিসেম্বর মাসেই  ‘ দ্য কাইট রানার ‘ গিরীশ মঞ্চ, মোহিত মৈত্র মঞ্চ এবং মিনার্ভা থিয়েটারে সফল ও সার্থক শো এর পরেই অকস্মাৎ করোনা বজ্রপাতে সারা পৃথিবীর মত ওরাও বর্তমানে লকডাউনে।

বিখ্যাত নাট্যব্যক্তিত্ব শ্রী রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্তর  নিজে ফোন করে এসে  টিকিট কেটে ওদের নাটক দেখে উচ্ছসিত প্রশংসা ওদের যাত্রাপথের শুরুতেই একটা বড় মাইলফলক। 

তবে করোনা বিপর্যয়ে হতোদ্যম না হয়ে, আনলকডাউনে সব সুরক্ষা আর বিধিনিষেধ মেনে ওরা আবার একটু একটু করে রিহার্সাল শুরু করেছে যা ওদের অনমনীয় হার না মানা দৃঢ় সংকল্পের প্রমাণ কারণ ওরা  জানেনা কবে আবার মঞ্চে নাটক করার সুযোগ পাবে । এরই মধ্যে আসতে চলেছে ওদের নতুন অডিও নাটক ‘রুল নং ফোর’।

এই অস্থির বিপন্ন সময়ে যখন নাট্যজগতের ভবিষ্যৎ অন্ধকার ,বর্তমানে অনেক নাট্যকর্মী রোজগারের জন্য বিভিন্ন পেশায় বাধ্য হয়ে চলে যাচ্ছেন , কেউ কেউ রাস্তায় সবজি বিক্রি করছেন সেখানে দেবাশিস আর অন্তরার এই নিরলস প্রয়াস কে সাধুবাদ জানাতেই হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *