শীতের ২০টি রুপটান

স্কিন,ড্যানড্রাফ,ঠোঁট গোড়ালির যত্নের টিপস।

হাড় কাঁপানো শীতকাল এসে গেছে।সোয়েটার,পুলওভার,কার্ডিগান,শীতের তাজা শাকসব্জির সঙ্গে হাজির ড্ৰাই স্কিন,ফাটা ঠোঁট,রুক্ষ চুল।সমস্যা অনেক আর সমাধানও হাতের মুঠোয়।

ত্বকের যত্নে

১) গরম জলঃ যতই আরামদায়ক হোক গরম জল চামড়ার লিপিড ব্যারিয়ার ভেঙে দেয় আর স্কিন ডিহাইড্রেট হয়ে যায় তাই গরমজল যতটা পরিত্যাগ করা যায় তত ভাল,হাড় হিম ঠান্ডা জল ইম্পসিবল হলে খুব গরম জলের পরিবর্তে ঈষদুষ্ণ গরম জল ব্যবহার করা যেতে পারে।

২) শীতের রোদ থেকে সাবধান।এই সময়ে চড়া রোদে স্বস্তি, প্রয়োজনীয় ভিটামিন ডি আহরণ হলেও সানব্লক শুধু রোদে পোড়ার হাত থেকে বাঁচায় না রোডের অন্যান্য ক্ষতিও আটকাতে সাহায্য করে তাই শীতেও সানব্লক লোশন ব্যবহার করা উচিত।ইউভিএ আর ইউভিবি এই দেখে সানব্লক লোশন কেনা উচিত।দেখে নিতে হবে ইউভিএর মাত্রা যাতে মিনিমাম ৩-৪ থাকে যেটা ক্রিমের প্যাকেতে ষ্টার সাইন দেওয়া থাকে আর ইউভিবি হল এসপিএফ তার মাত্রা যেন ৩০ থাকে।তবে যে কোনও লোশন ব্যবহারের আগে সেটা কানের পাশে লাগিয়ে দেখে নেওয়া উচিত কোনও আ্যাল্যার্জিক রিআ্যাকশন হচ্ছে কিনা।     

 ৩)ক্রীম-মনে রাখতে হবে শীতকালে শুধু ময়েশ্চারাইজারে ত্বকের প্রয়োজন মেটেনা,চাই ঘন ক্রীম।এই ক্রীম স্কিনের ওপর পাতলা লেয়ার তৈরী করে দেয় যার ফলে ঠান্ডা হাওয়া সরাসরি স্কিনে লাগতে পারেনা আর রুক্ষতাও এড়ানো যায়।   

৪) ডেড-সেলস: এই সময়ে মরামাস তুলতেই হবে কারণ ত্বকের কোষ প্রতিনিয়ত নষ্ট আর তৈরী হয়। দীর্ঘদিন এই ডেড সেলস জমলে ত্বক নিষ্প্রাণ দেখায় আর জৌলুশ হারায়।বডি ও ফেস স্ক্রাবিং ক্রীম ব্যবহার করতে পারেন অথবা বাড়িতেই বানিয়ে নিন এই হোম মেড স্ক্রাবার:

৩ চামচ ফ্রেশ কফিগুঁড়োর সঙ্গে ১ কাপ টকদই মিশিয়ে মিক্সারে ব্লেন্ড করে পাঁচ মিনিট রেখে এর সঙ্গে ১ চামচ মধু ভাল করে মিশিয়ে মুখে আপওয়ার্ড সার্কুলেশনে ৮/১০ মিনিট লাগিয়ে রাখার পর ঠান্ডা জলে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুদিন করে দেখলে মুখের জেল্লা পাল্টে যাবে।    

 ৫) তেল মালিশ- মা ঠাকুমার পুরোনো অবর্থ্য টোটকা। বেশিক্ষন নয়, ১০/১৫ মিনিট ধরে অলিভ,নারকেল,সর্ষের তেল ম্যাসাজ করলে ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখতে খুব সাহায্য করে।

ঠোঁটের জন্য:

শীতকালে খুব ঠোঁট ফাটে।ঠোঁটের যত্নেঃ

১) মাখন,গাওয়া ঘি,খাঁটি নারকেল তেল ম্যাজিকের মত কাজ করে।ঘুমোতে যাওয়ার আগে প্রত্যেকদিন ঠোঁটে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন।   

২) ব্যবহার করা টি ব্যাগ ফেলে না দিয়ে ঠোঁটে চেপে রাখুন কিছুক্ষণ।

৩)প্রতিদিন একটু বরফের টুকরো ঘষলেও ফল পাওয়া যাবে।

৪)সপ্তাহে একদিন ঠোঁট ৫/৬ ফোঁটা অলিভ অয়েলের সঙ্গে ১ চামচ চিনি মিশিয়ে স্ক্রাবার ব্যবহার করুন।ডেড সেলস উঠে যাবে।

৫) ঘন ঘন লিপ বাম অথবা মধু আর শিয়া বাটার লাগাতে পারেন।

গোড়ালির যত্নে:

ফাটা গোড়ালি নিয়ে শীতে নাজেহাল হননি এমন মানুষ বিরল। ফাটা গোড়ালির যত্নে:

১) ১০০ গ্রাম নারকেল তেল,৫ গ্রাম কর্পূর২০০ গ্রাম প্যারাফিন মোম একসঙ্গে গলিয়ে কৌটোতে রেখে দিন। প্রতিরাতে পা ভাল করে ধুয়ে এই পেস্ট লাগান।৩/৪ দিনেই উপকার পাবেন।

২) গরম জলে অল্প নুন,গোলাপ জল আর গ্লিসারিন মিশিয়ে ২ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন।তারপর পিউমিস স্টোন দিয়ে হাল্কা ঘষে ডেড সেলস তুলে ফেলে পরিষ্কার জলে পা ধুয়ে গ্লিসারিন,লেবুর রস আর গোলাপ জলের মিশ্রণ লাগান।সপ্তাহে একদিন করলে গোড়ালি মসৃণ দেখাবে।

৩) পাকা কলা চটকে পায়ের ফেটে যাওয়া জায়গায় মাখিয়ে রাখুন।

৪) পায়ে পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহার করুন।

৫)হিল বাম লাগিয়ে গোড়ালি ঢাকা জুতো পরলে উপকার পাবেন।

ড্যানড্রাফ মুক্তি

শীতকাল আর চুলে ড্যানড্রাফ হাতধরাধরি করে আসে।ড্যানড্রাফ রুখতে:

১)অ্যান্টিড্যানড্রাফ বা টি ট্রি অয়েলযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।স্ক্যাল্পে নখ লাগালে সংক্রমণ বাড়ে।

২) লেমন,ইউক্যালিপ্টাস এসেনশিয়াল অয়েল খুশকি রোধ করতে সাহায্য করে।

৩) একমুঠো তাজা নিমপাতা ২ কাপ জলে ফুটিয়ে জল ফুটে অর্ধেক হলে নামিয়ে ছেঁকে ঠান্ডা করে রেখে প্রতি রাতে শোওয়ার সময় চুলের গোড়ায় ব্যবহার করুন।

৪)সমান পরিমানে লেবুর রস আর নারকেল তেল মেখে ম্যাসেজ করে ২০ মিনিট পর শ্যাম্পু করে নিন।

৫)২ চামচ অ্যাপল সিডার ভিনিগার,সমপরিমাণ জল আর ২০ ফোঁটা টি ট্রি অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে স্ক্যাল্পে ম্যাসেজ করে ৫/৬ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।                     

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *