মির্জাপুর ২ রিলিজ নিয়ে এত ক্রেজ কেন ?

সম্প্রতি নেটজেনরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে ২ বছর পর আসন্ন এই সিরিজ নিয়ে ।এত উন্মাদনার কারণ কি ?

১) কালীন ভাইয়ারুপী পঙ্কজ ত্রিপাঠী-অন্যান্য অনেক দারুণ চরিত্রে অনায়াস সাবলীল পঙ্কজ এই সিরিজে হাড় হিম করা ভিলেনের চরিত্রকে একটা অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে তার সিজন ২ তে সবাই উৎসুক,উন্মুখ উত্তেজিত থাকবে পঙ্কজের অভিনয় দেখতে।

২) নজরকাড়া সেটিং আর পরিবেশ -একটা  সেটিং আর পরিবেশ,একটা আবহ,একটা চরিত্র গোষ্ঠী ,এই পুরো বিষয় দর্শকদের একবার ভীষণ এনগেজ করে রাখলে সেই পরিবেশ দর্শক আবার দেখতে চায়।সেক্রেড গেম্স্,গ্যাংস অফ ওয়াসিপুরের মত তাই এই অধীর আগ্রহ।

৩) রুদ্ধশ্বাস সাসপেন্স আর স্পিড : সিজন ১ এ নয় এপিসোডে দুর্দান্ত প্লট,তার বাঁকে বাঁকে সাসপেন্স ,থ্রিল আর দুর্দান্ত স্ক্রিনপ্লে ,অভিনয় আর নির্দেশনায় প্রত্যেকটা এপিসোডের শেষে পরের এপিসোডে টেনে নিয়ে যাওয়ার অমোঘ আকর্ষণ মির্জাপুরের সাফল্যের অন্যতম কারণ।

৪) নারীশক্তি : আদ্যন্ত প্যাট্রিয়ার্কি আবহে নারীচরিত্ররাও দারুন নজরকাড়া সুইটির রাগী মেজাজ, গোলু, বীনা এরা প্রত্যেকের প্রেসেন্স দারুণ মনকাড়া।

৫) দুর্ধর্ষ অভিনয় : বিক্রম ম্যাসি,আলী ফজল,শ্রিয়া পিলগাওঁকর,স্বেতা ত্রিপাঠি,দিব্যেন্দু শর্মা,বর্ষীয়ান কুলভূষণ খারবান্দার অভিনয় এই ছবির সম্পদ।এঁরা প্রত্যেকেই চুটিয়ে অভিনয় করেছেন।

৬) সহজ গল্প : মির্জাপুরের গল্প খুব জটিল নয়,খুব সহজে বলা যা অন্যমস্ক দর্শককে আবার ছবিতে ফিরিয়ে এনে দেয়,কমপ্লেক্স প্লট নেই,গল্পের ফ্লো খুব সাবলীল যা দর্শকদের এনগেজ করে রাখে।

৭) হিরো নেই : অন্যান্য প্রথাগত সিরিজের তুলনায় এর প্রধান পার্থক্য হল এই সিরিজে সে অর্থে কোনও নায়ক নেই।তুলনামূলক ভাবে কম অপরাধী বা ভিলেন হল প্রোটাগোনিস্ট।এই বিষয় মির্জাপুর কে অন্য সিরিজ থেকে আলাদা করে দিয়েছে।

৮) হাড় হিম ভায়োলেন্স : এটা ওয়েব সিরিজের আকর্ষণের খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আর মির্জাপুরেও তার ব্যতিক্রম নেই ।

৯) কমেডি : মির্জাপুরের বিশেষত্ব হল সম্পূর্ণ ভিন্ন পটভূমিকায় মানে  আনএক্সপেক্টেড সিচুয়েশনে কমেডি।সাধারণত কমেডি সিনের একটা প্রেক্ষাপট থাকে এখানে যা নেই বলে সেটা আরও বেশি ভাল লাগে ।

১০) ভাষা : উত্তর ভারতীয় দেশি ভাষার ব্যবহার ,এমন কিছু টার্ম যার সঙ্গে আমি জনতার পরিচয় নেই আর সেটার মজা ,এমন একটা ডায়ালেক্ট যেটা ছবির চরিত্রদের আরও বেশি ন্যাচারাল আর  বিশ্বাসযোগ্য করে তোলে যা মির্জাপুরের আকর্ষণ বাড়িয়ে তোলে।

মুখ্য অভিনেতা আলী ফয়জল জানালেন’যে কোনও দুর্দান্ত সফল ওয়েব সিরিজের সেকেন্ড সিজনে  দর্শকদের পাহাড় প্রমান এক্সপেক্টেশনের চ্যালেঞ্জ অনেক বেশি থাকে আর এই লকডাউনে দেরির জন্য তা আরও বেড়ে গেছে,মনে হচ্ছে দর্শকরা আমাদের পেছনে ধাওয়া করছে।’

উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চল প্রদেশের মাফিয়া ডন,ড্রাগ,বন্দুক আর তাদের দুর্ধর্ষ হাড় হিম করা সংঘর্ষের সাসপেন্স সিরিজ মির্জাপুর ২ রিলিজ ২৩শে অক্টবর অ্যামাজন প্রাইম ভিডিও তে।

ঋণ :ট্রিবিউন ,ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

দেখে নিন ট্রেলর  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *