বাইরে বেরোলে,বাড়িতে,করোনা ঝুঁকি এড়াতে কি করবেন? ডাক্তার,ভাইরোলজিস্ট সেফটি টিপস

রেড ক্রস,আই,সি,এম,আর, WHO র জরুরী গাইডলাইন্স।

বাইরে বেরোলে,অফিসে,কাজের জায়গায় :

  • মাস্ক আর ফেস শিল্ড,স্যানিটাইজার আর সম্ভব হলে গ্লাভস ছাড়া কোথাও নয় ,আর শত প্ররোচনাতেও খুব প্রয়োজন না হলে ভুলেও খুলবেন না I বাইরে বেরিয়ে চোখে ,নাকে মুখে,হাত দেবেন না।  
  • যতই অসুবিধে হোক,ভিড় বাস,অটো যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলতে হবে। প্রয়োজনে ১ ঘন্টা আগে বেরোন যাতে ট্রান্সপোর্ট অপশন পান।দরকার হলে ১/২ কিলোমিটার হাঁটুন,তাতে এক্সারসাইজ ও হবে। বলা সহজ,করা কঠিন কিন্তু আপনার আর আপনার পরিবারের সুরক্ষার জন্য এই কঠিন কাজ করতেই হবে।
  • অন্য ক্ষেত্রে যতটা সম্ভব খরচ কমিয়ে ট্রান্সপোর্ট খরচ বাড়াতে হবে কারণ রোজ বাস ,অটো, ট্যাক্সি, ওলা উবের একই সংখ্যায় নাও চলতে পারে।
  • মিনিমাম ৬ ফুট দূরত্ব রাখুন।ফিজিক্যাল ডিস্টেন্স,সোশ্যাল ডিস্টেন্স নয়,দুটোর অর্থ সম্পূর্ণ আলাদা।নিদেনপক্ষে ৪ ফুট।মাস্ক পরা নেই অথবা কোনো থুতনি কুমারের ধারে কাছে যাবেন না।মনে রাখবেন যত কম দূরত্ব ,আপনার সংক্রমণের ঝুঁকি তত বেশি।প্রয়োজন ছাড়া এই সময়ে কারুর সঙ্গে মেলামেশা করবেন না।  
  • টেবিল,ডোর নবস,সুইচ,হ্যান্ডল,ডেস্ক,ফোন,কীবোর্ড এই সব সারফেস ডিসিনফেক্ট, স্যানিটেজ করে ব্যবহার করুন।
  • অফিসে,কাজের জায়গায় পৌঁছেই ভুলেও মাস্ক খুলবেন না,পরে থাকবেন।
  • বাইরে থেকে বাড়ি ফিরেই সোজা ওয়াশরুমে গিয়ে সব ছেড়ে ভাল করে সাবান দিয়ে চান করে তবেই বাড়ির লোকের সংস্পর্শে আসুন আর হালকা গরম জলে গার্গল করে নিন।    
  • বাজার অথবা অনলাইন শপিং থেকে মাছ,মাংস গ্রসারি,শাকসবজি  বাড়ি এনে ভাল করে জল দিয়ে ধুয়ে নেওয়া উচিত।প্যাকেজড জিনিসপত্র একটা ভিজে কাপড় দিয়ে পরিষ্কার করে নিন ,আর ৭২ ঘন্টা পরে ব্যবহার করলে তাতে সংক্রমণের চান্স প্রায় নেই।বাজারে গেলে সেলফোন,ঘড়ি ছাড়া যান।বাজার থেকে ফিরে অবশ্যই মিনিমাম ২০ সেকেন্ড ধরে সাবান জলে হাত ধুয়ে নিন।   

বাড়িতে :

  • বাচ্চাদের কখনও মাস্ক পরে একা ছাড়বেন না ,চোখের আড়ালে হতে দেবেন না।
  • ফ্ল্যাটে ,কমপ্লেক্সে যত পরিচিতই হোক তার বাড়িতে আসা যাওয়া নিয়ন্ত্রণ করুন,মাস্ক পরে কথা বলুন আর বাড়িতে আসতে হলে স্যানিটাজার ,সাবান দিয়ে হাত ধোয়া ,ডিস্টেন্স মেন্টেন করুন ,তাতে তিনি যা খুশি মনে করুন।   
  • অপ্রয়োজনে একদম বাড়ির বাইরে বেরোবেন না।সরকার, ডাক্তার, বিশেষজ্ঞ,পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মী,বিজ্ঞাপন,কাগজ,টিভি, মিডিয়ায় কয়েক লক্ষ্য বার বলা হয়েছে। জনস্বার্থে আবার রিপিট করা হল।   

বিশেষ ঘোষণা: কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বিশেষ হেল্পলাইন নাম্বারে ফোন করলে অ্যাম্বুল্যান্স বা টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত পরিষেবা আর সহায়তা পাওয়া যাবে। এছাড়া থাকছে টোল ফ্রি হেল্পলাইন নম্বর: ১৮০০ ৩১৩ ৪৪৪ ২২২ • টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-২৩৫৭৬০০১ • কোভিড-১৯ আক্রান্তদের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-৪০৯০২৯২৯।

তথ্যসূত্র : আই,সি,এম,আর গাইডলাইন,সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল,রেড ক্রস,হু গাইডলাইন,হেল্থ ম্যাটার্স।    

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *