পাশের বাড়িতে করোনা হলে আপনারও হবে? ডাক্তার, ভিরোলজিস্ট কি বলছেন?

বাড়ির পাশে করোনা আক্রান্ত হলে আপনার রিস্ক কতটা জানেন?ডাক্তার,ভিরোলজিস্ট এক্সপার্ট পরামর্শ:

এই সময়ের সবচেয়ে বড়ো আতঙ্ক হল আশেপাশে কারুর করোনা পজিটিভ হলে আপনি ও আপনার পরিবার কতটা সুরক্ষিত? ডাক্তার,ভিরোলজিস্ট, সি ডি সি পরামর্শ :

১) অযথা প্যানিক করবেন না:আপনার ফ্ল্যাটের পাশে,ওপরে,কমপ্লেক্সে, বাড়ির পাশে কেউ কোভিড পজিটিভ হলে প্যানিক বা আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকুন।বাফেলো ইউনিভার্সিটির ইনফেকসাস ডিজিজ চিফ ডক্টর টমাস রুশো জানাচ্ছেন,’সাধারণত আক্রান্ত ব্যক্তি আইসোলেশনে থাকলে তার থেকে আশেপাশে করোনা ছড়ানো মুশকিল কারণ এই সংক্রমণ মূলত রেসপিরেটরি অর্থাৎ শ্বাস প্রশাস বাহিত।

২) সি ডি সি ( সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল) গাইডলাইন বলছে এই ভাইরাসের পক্ষে লং ডিস্টেন্স এয়ারবোর্ন ট্রান্সমিশন অর্থাৎ বায়ুবাহিত হয়ে বেশিদূর যাওয়া প্রায় অসম্ভব সুতরাং পাশের ,ওপরের ,উল্টোদিকের ফ্ল্যাট থেকে তা আসার সম্ভাবনা প্রায় নেই।

৩) স্ট্যানফোর্ড আর হার্ভার্ডের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডক্টর এন্টোনি ক্যাভে জানাচ্ছেন ‘এই ভাইরাস পার্টিকেল ভারী হওয়ার জন্য বাতাসে খুব বেশিদূর যেতে পারে না তাই আসে পাশে ঝুঁকি প্রায় নেই।

৪) WHO গাইডলাইন্স জানাচ্ছে বাড়ির,ফ্ল্যাটের,কমপ্লেক্স আসে পাশে  কর্পোরেশন, সিভিক ভলান্টিয়ারদের বলে স্যানিটেজ করা,বাইরে থেকে ফিরলে ভাল করে সাবান জলে হাত ধোয়া,গরম জলে নুন দিয়ে গার্গল, ফেস শিল্ড,মাস্ক ছাড়া না বেরোনো,বাইরে আর বাইরে থেকে ফিরে চোখে নাকে মুখে হাত না ধুয়ে স্পর্শ করা এই সবাই ৮০% সংক্রমণ এড়ানো যায়।

৫)কমন স্পেস ব্যবহারের সময় সতর্ক থাকুন, লিফ্ট,সিঁড়ির হ্যান্ডেল স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন। কাজ না থাকে বাড়ি থেকে বেরোবেন না।বাইরের জিনিসপত্র অনলাইন ডেলিভারি হলে ফ্ল্যাটের বাইরে অথবা নিচে কন্ট্যাক্টলেস ডেলিভারি নিন।

সংবাদ মাধ্যমে ,সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশিরভাগ খবরে কোভিড পজিটিভ রুগি ও পরিবারের সঙ্গে তার ফ্ল্যাটের ,কমপ্লেক্সে,আশে পাশের সবার সহযোগিতা,কো অপারেশনের খবরের পাশে এক শ্রেণির নির্লজ্জ ,স্বার্থপর নরাধম প্রতিবেশিদের নির্মম কাজের সজোরে প্রতিবাদ করুন আর প্রশাসন কে জানান।

মূল কথা হল একদম আতঙ্কে দুশ্চিন্তায় থাকবেন না আর সবচেয়ে জরুরি কোভিড পজিটিভ রুগী ও পরিবারের সঙ্গে সহযোগিতা করুন,কো-অপারেট করুন,তিনি অসুস্থ্য, অপরাধী নন।

উপরিউক্ত সুরক্ষা বিধি, নিয়ম মেনে সচেতন হলে, শারীরিক দূরত্ব মেনে চললে আপনার আশে পাশে কেউ কোভিড পজিটিভ হলেও আপনার ইনফেশনের চান্স প্রায় নেই।বুঝলেন ?         

 বিশেষ ঘোষণা: কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বিশেষ হেল্পলাইন নাম্বারে ফোন করলে অ্যাম্বুল্যান্স বা টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত পরিষেবা আর সহায়তা পাওয়া যাবে।এছাড়া থাকছে টোল ফ্রি হেল্পলাইন নম্বর: ১৮০০ ৩১৩ ৪৪৪ ২২২ • টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-২৩৫৭৬০০১ • কোভিড-১৯ আক্রান্তদের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-৪০৯০২৯২৯।    

তথ্যসূত্র : সিডিসি,স্ট্যানফোর্ড,হার্ভার্ড মেডিসিন,WHO,ভিরোলজিস্ট গুইডো ভ্যানহাম,বেলজিয়াম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *