ছবি-দ্য সান,ইউ কে।

ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটায় ব্রেন বেশি খুশি হয়?

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে বিশ্বখ্যাত এমআইটি স্লোয়ান স্কুল অফ ম্যানেজমেন্টের রিসার্চ রিপোর্ট।

সাম্প্রতিক রিসার্চে প্রমাণিত দীর্ঘদিন ধরে ক্রমাগত ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটায় আমাদের ব্রেন ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটার জন্য প্রলুব্ধ হয়ে ওঠে।গত প্রায় এক যুগের বেশি সময় প্রমাণিত যে ক্রেডিট কার্ডে বেলাগাম কেনাকাটায় আমরা বেশ উত্তেজনা আর উৎসাহ পাই।কিন্তু এটা কেন হয় সেই বিষয়ে আমাদের কাছে প্রমাণিত কোনও ব্যাখ্যা ছিল না।

পৃথিবী বিখ্যাত এমআইটি স্লোয়ান স্কুল অফ ম্যানেজমেন্টের পিএইচ ডি এবং উটা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক শ্রী সচিন ব্যাংকারের সাম্প্রতিক গবেষণা যা বিশ্বখ্যাত ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল সংবাদপত্রে গুরুত্ব সহকারে প্রকাশিত সেই প্রতিবেদনে জানা গেল –

যখন অনলাইনে ডেবিট নয় ক্রেডিট কার্ডে আমরা শপিং করি তখন আমাদের পছন্দমতো কোনও প্রোডাক্ট দেখলেই ব্রেনের নিউট্রাল নেটওয়ার্কে একটা রিওয়ার্ড সেনসেশন তৈরী হয় আর আমাদের মনের মধ্যে যেন একটা রিওয়ার্ড অর্থাৎ পুরস্কার পাচ্ছি এমন একটা ভাব তৈরি হয়,একটা ট্রিগার পয়েন্ট, তার প্রধান কারণ এর দাম এখনই নয় পরে দেওয়া যায় বলে।

পড়ুন: করোনাকালে মেন্টাল হেলথ ভালো রাখতে এই এক্সপার্ট টিপস জানেন ?

গত ফেব্রুয়ারি মাসে সায়েন্টিফিক রিপোর্টের একটি রিসার্চ পেপারে আরও একটি মস্তিষ্কের প্রবণতার কথা বলা হয়েছে।রিসার্চে দেখা যাচ্ছে আমাদের ব্রেন অনলাইনে ডেবিট কার্ড আর ক্রেডিট কার্ডের কেনাকাটায় ভিন্ন ভাবে কাজ করছে।ক্রেডিট কার্ডে কেনার সময় শুধু এখন দাম দিতে হচ্ছেনার সুবিধে ছাড়াও লাগামহীন,অনিয়ন্ত্রিত কেনাকাটায় উৎসাহী করে তুলছে।

এই অতিমারিতে যখন উপার্জন,আয়-ব্যয় বিপর্যস্ত,লকডাউনের কারণে অনেকের কাজের ক্ষেত্রে বাধা নেমে এসেছে তখন হতাশা আর নিরাশা এড়াতে বেলাগাম ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটা আমাদের জীবন এই করোনা সংকটের ওপর আরও ভয়াবহ সর্বনাশের মুখে এসে দাঁড়াবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।     

এই করোনাকালে সাইকায়াট্রিস্টদের গভীর পর্যবেক্ষণ আর অভিমত এখন চারদিকের, নিজের,বন্ধু বান্ধব আত্মীয়স্বজনের অসুখ,মৃত্যু,হতাশা আর দুরাবস্থার কারণে সর্বস্তরের মানুষের  মন ডিপ্রেসড থাকার কারণে অনলাইনে ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটায় একটা তাৎক্ষণিক আনন্দ পায় যার সঙ্গে এই রিসার্চের অভিমতের মিল আছে যেটা সেই বিল পেমেন্ট করতে গিয়ে বিপর্যস্ত হয়ে বেখেয়ালে,বেলাগাম কেনাকাটার মূল্য চোকাতে হয়।           

এর পরে ক্রেডিট কার্ডে কিছু কেনাকাটার সময়ে সতর্ক ভাবনাচিন্তার সময় এসেছে। চার্বাক দর্শণে বলা হয়েছে ‘ঋণং কৃত্বা ঘৃতং পিবেৎ,যাবৎ জীবেৎ সুখং জীবেৎ।’ অর্থাৎ ঋণ করে হলেও ঘি খাও, যতদিন বাঁচো সুখে বাঁচো এই চিন্তা এখন সর্বনাশী হতে পারে ,তাই সাধু সাবধান।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *